• সমগ্র বাংলা

আশুলিয়ায় সোহাগ মেম্বারের মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন 

  • সমগ্র বাংলা
  • ১২ আগস্ট, ২০২২ ২১:৪২:৫৪

ছবিঃ সিএনআই

সাভার প্রতিনিধিঃ ঢাকার আশুলিয়ার পাথালিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার সফিউল আলম সোহাগ এর মুক্তির দাবিতে নবীনগর স্মৃতিসৌধের সামনে সাধারণ জনতা মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে।

বাদ জুম্মা আশুলিয়ার নবীনগরের জাতীয় স্মৃতি সৌধের সামনে বিভিন্ন ব্যানারে পাথালিয়া ইউনিয়ন থেকে নারী পুরুষের উপস্থিতিতে এ বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত হয়ে বক্তারা বলেন, সোহাগ মেম্বারের নামে যে মামলা হয়েছে তার বিরুদ্ধে আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। সেই সাথে সোহাগ মেম্বারের নিঃস্বার্থ মুক্তি দাবি করছি। সোহাগ আমাদের ওয়ার্ডের শুধু মেম্বার নয় সে আমাদের ভাই, সন্তান ও অভিভাবক এবং আমাদের আগামি দিনের কান্ডারী। সোহাগ মেম্বার মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই করার কারণে এলাকার চিহ্নিত মাদক কারবারীদের মিথ্যা মামলায় আজ জেল খাটছে। আর সেই মাদক কারবারিকে সাহায্য করছে দু'একজন নামধারী অপ-সাংবাদিক। আমরা পাথালিয়ার মানুষ যখন এক হয়ে মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে লড়াই করছি। ঠিক তখন এই সেই মাদক কারবারি দের সাহায্য করছে তারা। 

মানববন্ধনে উপস্তিত হয়ে ইয়ারপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার হালিম মৃধা বলেন, আমরা মেম্বাররা সব সময় চাই এলাকার মানুষ ভালো থাকুন। কিছু ক্ষেত্রে আমাদের সমাজকে রক্ষা করতে হলে মাদক বেচাকেনা কারীদের বিপক্ষে অবস্থান নেওয়া লাগে। তখন কিছু অপ-সাংবাদিক আমাদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে লেখালেখি করে। তিনি আরো বলেন, এরা সাংবাদিক এর নাম দিয়ে বিভিন্ন যায়গায় চাঁদা বাজিসহ অনেক অপরাধ মূলক কাজ করে থাকে। তাদের এমন অনেক অপরাধের ডকুমেন্টস আমার কাছে আছে।

মানববন্ধনে উপস্তিতি হয়ে আশুলিয়া থানার সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি এস এ শামিম বলেন, আপনারা যারা সাংবাদিক এর পেশায় কাজ করেন আমি তাদের শ্রদ্ধা করি। আমার কথা হলো সফিউল আলম সোহাগ যদি কোন অপরাধ করে থাকে তাহলে আপনারা সত্য তথ্যের মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে নিউজ করেন। এতে আমাদের কোন আক্ষেপ নাই, কিন্তু সাংবাদিকতার নামে একজন মানুষের নামে ফেসবুকে আবল-তাবোল লেখার কারন কি? আমি এর তিব্রনিন্দা জানায় ও সফিউল আলম সোহাগের নিঃস্বার্থ মুক্তি চাই। 

এসময় মানববন্ধনে বিভিন্ন ওয়ার্ডের মেম্বার, সাধারন মানুষ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনৈতিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (৯আগস্ট) পাথালিয়া ইনিয়নের নিরিবিলি এলাকায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েকজন উঠতি বয়সের ছেলেদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এঘটনায় নিরিবিলির আব্দুল জলিলের ছেলে তৌহিদসহ কয়েকজন মিলে ইমন নামের একজনকে  মারধর করে বাড়িতে আটকিয়ে রাখে। এমন খবর পেয়ে শফিউল আলম সোহাগ মেম্বার আশুলিয়া থানার এক এসআইকে বিষয়টি অবগত করে ছেলেটিকে উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে নিজেই যায়। ওই ছেলেকে উদ্ধার করে নিয়ে চলে আসার সাথে সাথে জলিলের স্ত্রী তৌহিদের মা বকুল বেগম বাদি হয়ে ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে আরো কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামী করে ওইদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে মেম্বারকে থানায় ডেকে এনে মেম্বারসহ আটজনকে আটক করে পুলিশ। পরেরদিন অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে রুজু করে গ্রেফতার দেখিয়ে আসামীদের থানা থেকে আদালতে পাঠান ।

 

মন্তব্য ( ২)





image
image
  • company_logo