• সমগ্র বাংলা

পাবনায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় দুই নারী আহত

  • সমগ্র বাংলা
  • ১২ আগস্ট, ২০২২ ১৬:২৭:০৫

ছবিঃ সিএনআই

তোফাজ্জল হোসেন বাবু,পাবনাঃ জমি নিয়ে বিরোধের জেরে দুই নারীকে এলোপাথারী মারপিট ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। গত বুধবার (১০ আগষ্ট) বিকেলে পাবনার বেড়া উপজেলার কুশিয়ারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত রুকাইয়া পারভীন লতা (৩২) নামের একজনকে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী নারী জাহানারা খাতুন।

লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, জমিজমা নিয়ে ওই গ্রামের মৃত মজিদ মাস্টারের স্ত্রী ও চাকলা ইউনিয়ন পরিষদের তথ্য কর্মকর্তা জাহানারা খাতুনের সাথে একই গ্রামের আব্দুস ছামাদ, আশকার আলী গংদের পূর্ববিরোধ চলছিল। গত বুধবার জাহানারা খাতুন তার স্বামীর পৈত্রিক সম্পত্তি এবং ক্রয় সূরে মালিকানা সম্পত্তি আমিন দ্বারা মাপ-ঝোঁক করছিলেন। এ সময় পূর্ব শত্রুতার জেরে জাহানারা খাতুন, তার ছেলে তারেক ও মেয়ে রুকাইয়া পারভীন লতাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে আব্দুস ছামাদ, আশকার আলী গং।

তাদের গালিগালাজ করতে নিষেধ করলে অভিযুক্তরা অন্তত ১৫/২০ জন ধারালো দেশী অস্ত্র নিয়ে জাহানারা খাতুনের মেয়ে রুকাইয়া পারভীন লতাকে বেধড়ক মারপিট করে ও কোপায়। এ সময় তার মা এগিয়ে গেলে তাকেও মারপিট করে হামলাকারীরা। পরে তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে হামলাকারীরা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত রুকাইয়া পারভীন লতাকে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আর জাহানারা খাতুনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

পরবর্তীতে এ ঘটনায় জাহানারা খাতুন বাদি হয়ে ২০ জনকে অভিযুক্ত করে ওইদিন রাতে বেড়া মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য ( ০)





  • company_logo